মেনু নির্বাচন করুন

১নং ঘিলাছড়ি ইউপি কার্যালয়

পরিষদের এই ভবনটি অনেক পুরোনো, কমপ্লেক্স তৈরীর জন্য বরাদ্ধ থাকলেও পর্যাপ্ত ভুমির অভাবে তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না। পর্যাপ্ত ভুমি পাওয়ার পর এই ভবনটি ভেঙ্গে কমপ্লেক্স তৈরী করা হবে।

রাজস্থলী উপজেলায় সর্ব প্রথম ইউনিয় হচ্ছে ঘিলাছড়ি। এই ইউনিয়নে ঘিলা নামে জঙ্গলে এক ধরনের ফল পাওযা যেত। যা এখানকার জনগোষ্ঠীর এই ফলটি নিয়ে সংস্কৃতিি এইতিহ্য ধরে রয়েছে। এই ঘিলা ফলটি খায় না তবে এটি দিয়ে জাতীয় খেলা রয়েছে। বিশেষ করে তঞ্চঙ্গ্যা জনগোষ্ঠী প্রতিবছর ঘিলাখেলা আয়োজনের মধ্য দিয়ে সংস্কৃতিকে ধরে রখেছে। 

রাজস্থলী উপজেলার ১নং ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন একটি প্রাকৃতিক লীলাভূমি। রাজস্থলী হচ্ছে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা একিটি অন্যতম উপজেলা, এই উপজেলায় মোট তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।  উপজেলা সর্বপ্রথম ইউনিয়ন হচ্ছে ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন। সংলগ্ন ৩৩৩নং ঘিলাছড়ি মৌজায় জান্দিমইন পাহাড় রয়েছে। এই পাহাড়ের চুড়া বেশ মনোরম। এই চুড়াতে উঠলে উন্মুক্তশীতল হাওয়ায় গ্রীস্মের তীব্র্র রোদে ও শরীর ঠান্ডা হয়ে যায় এবং মনের সজীবতা অনুভূত হয়। এই পাহাড়ে চুড়াই উচ্চতা প্রায় ৮০০ থেকে ৯০০মিটার। এখানকার বসবাসের জনগৌষ্ঠীর মধ্যে রয়েছে, বাঙ্গালী সহ তঞ্চঙ্গ্যা, মারমা, ত্রিপুরা, খিয়াং ও চাকমা। জনসংখ্যা প্রায় চৌদ্দ হাজের অধিক।

 

রাজস্থলী উপজেলার ১নং ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন একটি প্রাকৃতিক লীলাভূমি। রাজস্থলী হচ্ছে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা একিটি অন্যতম উপজেলা, এই উপজেলায় মোট তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।  উপজেলা সর্বপ্রথম ইউনিয়ন হচ্ছে ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন। সংলগ্ন ৩৩৩নং ঘিলাছড়ি মৌজায় জান্দিমইন পাহাড় রয়েছে। এই পাহাড়ের চুড়া বেশ মনোরম। এই চুড়াতে উঠলে উন্মুক্তশীতল হাওয়ায় গ্রীস্মের তীব্র্র রোদে ও শরীর ঠান্ডা হয়ে যায় এবং মনের সজীবতা অনুভূত হয়। এই পাহাড়ে চুড়াই উচ্চতা প্রায় ৮০০ থেকে ৯০০মিটার। এখানকার বসবাসের জনগৌষ্ঠীর মধ্যে রয়েছে, বাঙ্গালী সহ তঞ্চঙ্গ্যা, মারমা, ত্রিপুরা, খিয়াং ও চাকমা। জনসংখ্যা প্রায় চৌদ্দ হাজের অধিক।


Share with :
Facebook Twitter